Thursday, July 7, 2022
Homeজাতীয়সারাদেশঅনিয়মের পক্ষ না নেয়ায় কয়েদিকে বদলি, সাংবাদিককেও হুমকি সেই চিকিৎসকপত্নীর

অনিয়মের পক্ষ না নেয়ায় কয়েদিকে বদলি, সাংবাদিককেও হুমকি সেই চিকিৎসকপত্নীর

রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগার হাসপাতালে টাকার বিনিময়ে সুস্থ হাজতীদের বেড পাইয়ে দেয়াসহ নানা অনিয়মের পক্ষ না নেয়ায় জাহিদুল ইসলাম মানিক নামে এক কয়েদিকে বদলির অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার (৭ এপ্রিল) দুপুর ১২টায় রাজশাহী প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেন ওই কয়েদির স্ত্রী মোছা. কাজলী। এসব ঘটনার মূল হোতা কারা চিকিৎসক জুবায়েরের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তিনি। অভিযুক্ত ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে গালিগালাজ ও হুমকিধামকি দিয়েছেন তার স্ত্রী ডা. ফারহানা।

সংবাদ সম্মেলনে কয়েদি মানিকের স্ত্রী কাজলী বলেন, কারা হাসপাতালে নানা অনিয়ম হতো। আমার স্বামী ছিলেন সেখানকার চিফ রাইটার। তবে এসব অনিয়মের পক্ষ না নেয়ার ডাক্তার জুবায়ের আমার স্বামীর সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেন। তাকে মাদক দিয়ে ফাঁসানোর হুমকি দেয়া হয়। কাজলী বলেন, আমার স্বামী এসব ঝামেলায় থাকতে না চেয়ে চিফ রাইটারের দায়িত্ব ছেড়ে দেন। তবুও ডা. জুবায়ের বিনা অপরাধে মানিককে পাবনায় বদলির সুপারিশ করেন এবং গত মঙ্গলবার তাকে পাবনা কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় স্বামীকে রাজশাহীতে ফিরিয়ে আনা ও ডা. জুবায়েরের শাস্তির দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।

এদিকে কারা সূত্র জানায়, গত রবিবার রাজশাহী কারাগার হাসাপাতালের ৩, ৪ ও ৫ নম্বর ওয়ার্ডে তল্লাশি চালিয়ে নগদ ৯ হাজার ৮০০ টাকা পায় কর্তৃপক্ষ। এছাড়া ১৪ নম্বর সেলে বন্দী শামীমের কাছ থেকে ৩টি মোবাইল ফোন এবং ১০ সিম কার্ড উদ্ধার করা হয়। তবে ধামাচাপা দেয়া হয় বিষয়টিকে। রাজশাহী কারাগারের হাসাপাতালে সুস্থ হাজতীদের সিট পাইয়ে দেয়ার অপরাধে সেখানকার চিফ রাইটার তাজবির রহমানকে বগুড়ায় বদলি করা হয়েছে। আর রাইটার সোহেলকে বদলি করা হয় সিরাজগঞ্জে। গত সোমবারও কারা হাসপাতালে ১৩ জন সুস্থ হাজতী ভর্তি ছিলেন। বিভিন্ন অনিয়মের সঙ্গে কারা হাসপাতালের চিকিৎসক জুবায়ের প্রত্যক্ষভাবে জড়িত বলে ওই সূত্রটি জানিয়েছে।

এছাড়া বিভিন্ন অনিয়ম-দুর্নীতির বিষয়ে ভোরের কাগজে সংবাদ প্রকাশের পর সাংবাদিকদের ওপর চটেছেন তার স্ত্রী ডা. ফরাহানা। ভোরের কাগজের রাজশাহীর স্টাফ রিপোর্টার ও রাজশাহী প্রেসক্লাবের সভাপতি সাইদুর রহমানকে গত সোমবার বিকেলে মুঠোফোনে হুমকি-ধামকি দিয়েছেন ওই চিকিৎসকপত্নী। এছাড়া ক্ষুদে বার্তায় ডা. ফরাহানা বলেছেন, ‘কেন আপনারা ডা. জুবায়েরকে নিয়ে পড়েছেন? কারাগারে আরো ডাক্তার ডিউটি করেন, শুধু জুবায়ের না। অসঙ্গতির জায়গা কারাগারেই আরো অনেক আছে, শুধু ডা. জুবায়ের না। সব ডাক্তার সাংবাদিকদের লেখায় ভয় পায় না। এবার উনি প্রতিবাদটা দেখতে পাবেন।’

এসব বিষয়ে তদন্ত করে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের কথা জানিয়েছেন কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এএসএম আনিসুল হক। ইতোমধ্যে দোষী দুজনকে বদলিও করা হয়েছে। তিনি বলেন, রাজশাহী কারাগার হাসপাতালে সকল আিনয়ম দূর করা হবে। গোয়েন্দা তথ্য ও গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ থেকে সেখানকার অবস্থার বিষয়ে জানতে পেরেছি। কারা হাসপাতালে চিকিৎসকদের সুপারিশের ভিত্তিতে হাজতীরা থাকতে পারেন। কেউ অনিয়ম করলে কঠের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

RELATED ARTICLES
- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments